রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

চীন দামে কম পেয়ে নীরবে রুশ তেল আমদানি বাড়িয়েছে: রয়টার্স

ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরু পর থেকেই রাশিয়ার তেল-গ্যাস আমদানির ওপর বিভিন্ন চাপ সৃষ্টি করে যুক্তরাষ্ট্র ও এর ইউরোপীয় মিত্ররা। এমনকি সেখান থেকে তেল-গ্যাস আমদানি বন্ধ করা হবে বলেও হুমকি দিয়েছে তারা। এমন অবস্থায় চীনের দিকে ঝুঁকছে রাশিয়া। ইতোমধ্যে কম দামে জ্বালানি তেল কেনা বাড়িয়ে দিয়েছে বেইজিং। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তেল পরিবহনের তথ্য এবং জ্বালানি ব্যবসায়ীদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থাটি। এতে বলা হয়, ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরুর পর পশ্চিমা ক্রেতারা রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্য করা থেকে বিরত থাকতে শুরু করায় শুন্যস্থান পূরণ করতে এগিয়ে এসেছে চীন।

ভর্টেক্সা অ্যানালিটিক্সের তথ্য অনুযায়ী, চীনের সমুদ্রপথে রাশিয়ার তেল আমদানি মে মাসে প্রতিদিন রেকর্ড ১১ লাখ ব্যারেলে পৌঁছেছে। এই বছরের প্রথম তিন মাসে তা ছিল প্রতিদিন ৭ লাখ ৫০ হাজার ব্যারেল আর ২০২১ সালে ছিল প্রতিদিন ৮ লাখ ব্যারেল।

জানা যায়, এশিয়ার শীর্ষ পরিশোধন কোম্পানি সিনোপেক কর্পোরেশনের বাণিজ্যিক শাখা ইউনিপেক আমদানিতে নেতৃত্ব দিচ্ছে। এর সঙ্গে রয়েছে চীনের প্রতিরক্ষা কংলোমারেট নরিনকোর শাখা ঝেনহুয়া ওয়েল। রয়টার্সের হাতে আসা এক নথিতে দেখা যায়, রুশ তেল চীনে আমদানিতে বড় প্রতিষ্ঠান হয়ে উঠছে হংকংয়ে নিবন্ধিত কোম্পানি লিভনা শিপিং লিমিটেড।

তবে এ বিষয়ে সিনোপেক, ঝেনহুয়া এবং লিভনা কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরুর পর পশ্চিমা ক্রেতারা রাশিয়া ছাড়তে শুরু করলে শুন্য হওয়া স্থান পুরণে এগিয়ে আসে এসব প্রতিষ্ঠান। এই আগ্রাসনকে রাশিয়া ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলছে।