মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

লালমনিরহাটে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ে কো-ভাইস চ্যান্সেলর এয়ার কমডোর মঞ্জুর কবীর ভূইয়া বলেছেন, চলতি বছরের জুন মাসে লালমনিরহাটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাশ শুরু হবে। তিনি সম্প্রতি লালমনিরহাট বিমান বাহিনী ইউনিটের সভাকক্ষে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় কালে এই কথা বলেন।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল কো- অপারেশন অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) এয়ার কমোডর (অব.) শফিকুল আলম। রেজিস্ট্রার এয়ার কমোডর কে এম এনায়েত কবীর, ট্রেজারার এয়ার কমোডর আব্দুল্লাহ-আল-মাহবুব, চীফ অব পাবলিক রিলেশন, ইনফরমেশন অ্যান্ড পাবলিকেশন্স জাহিদুল ইসলাম খান, ফ্যাকালটি অব অ্যাভিয়েশন ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি ডিন এয়ার কমডোর (লপিআর) আব্দুস সালাম, প্রকল্প পরিচালক গ্রুপ ক্যান্টেন শেখ আব্দুল্লাহ আলমগীর, অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (সংস্থাপন) গ্রুপ ক্যাপ্টেন শেখ সাজ্জাদ হোসেন, এ এস এ আই বিভাগীয় প্রধান গ্রুপ ক্যাপ্টেন মেজবাহ উদ্দিন, পরিচালক অর্থ ও হিসাব গ্রুপ ক্যাপ্টেন রফিকুল ইসলাম, উপ-রেজিস্ট্রার প্রকিউর মেন্ট-স্কোয়াড্রেন লিডার এস এম আরমানুজ্জামান, উপ-রেজিস্ট্রার প্রশাসন স্কোয়াড্রেন লিডার আব্দুল কাদের জিলানী, সহকারী (ইইই) সামিউল ইসলাম সাদেক, প্রভাষক(ইইই) সামিন রহমান। তাছাড়া লালমনিরহাট বিমান বাহিনীর অধিনায়ক ইয়ং কমান্ডার মেজবাহ উদ্দিন, লালমনিরহাট বার্তার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম কানু, প্রথম আলো জেলা প্রতিনিধি আব্দুর রব সুজন, ডেইলি স্টার জেলা প্রতিনিধি দীলিপ রায়, যমুনা টিভির প্রতিনিধি আনিছুর রহমান, দি ইনডিপেনডেন্ট জেলা প্রতিনিধি আবু হাসনাত রানা, এটিএম বাংলার জেলা প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন স্বপন, বৈশাখী টিভি জেলা প্রতিনিধি তৌহিদুল ইসলাম লিটন উপস্থিত ছিলেন।

প্রো-ভাইস চ্যাঞ্চেলর বলেন, এটি দেশের বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে শিক্ষার্থীর বিশ্বমানের লেখাপড়ার সুযোগ পাবে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে এডিয়েশন ম্যানেজমেন্টে এমবিএ এভিয়েশন সেফটি অ্যন্ড অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশনে এমএসসি, আর্ন্তজাতিক ও মহাকাশ আইনে এলএমএম বিষয়সহ অন্যান্য বিষয়ে স্নাতকোত্তর ক্লাস চালু রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিগত ৪ বছরে ঢাকা, তেজগাঁও পুরাতন বিমান বন্দরে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হলে এখানে পর্যায়ক্রমে ২০ হাজার মানুষের সমাগম ঘটবে। লালমনিরহাট এভিয়েশন নগরীতে পরিণত হবে। এলাকার মানুষের কর্মসংস্থান বৃদ্ধির পাশাপাশি অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জিত হবে।